চট্টগ্রামে টাকা আত্মসাৎ করে লাপাত্তা, রাজশাহী ট্রাফিকের মামলা খুঁজে দিলো প্রতারক

0

চট্টগ্রাম থেকে প্রায় ৫৪ লাখ টাকা আত্মসাৎ করে রাজশাহীতে গা ঢাকা দেন হাসিব নামের এক ব্যক্তি। রাজশাহীতে গিয়েও ধরা পড়ার ভয়ে বাসা বদলান ৩ বার। মোবাইল ট্রাকিং থেকে ধরা পড়তে পারেন সে কারণে বন্ধ রাখেন নিজের মুঠোফোনও। যোগাযোগ বন্ধ রাখেন সব আত্মীয়স্বজনের সাথেও। কিন্তু বিধি বাম। এতো সর্তকতার পরও রাজশাহী জেলায় ট্রাফিক পুলিশের এক মামলা সূত্রে হাসিব আটকা পড়লো পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগশন-পিবিআইয়ের জালে।

ট্রাফিক পুলিশের মামলায় উল্লিখিত মোবাইল নম্বরের সূত্র ধরে অবশেষে রাজশাহী জেলার চন্দ্রিমা থানাধীন ছোট বনগ্রাম এলাকার একটি ভাড়াবাসা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় হাসিব শেখকে। ছেলেকে অর্থ আত্মসাৎ ও পালাতে সহয়তা করায় এসময় আটক করা হয় হাসিব শেখের বাবা বাবা হেদায়েত শেখকে (৫৫)।
আটককৃত হাসিব রাজশাহী আত্মগোপন করলেও তার বাড়ি ফিরোজপুর জেলার নেচারাবাদ থানার চাপকাটি গ্রামে।

সোমবার (২৩ জানুয়ারি) পিবিআই চট্টগ্রাম মেট্রোর পুলিশ সুপার নাঈমা সুলতানা এক সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত তুলে ধরে বলেন, চট্টগ্রাম নগরীর ইপিজেড এলাকার মাসুদ রানা নামের এক ব্যবসায়ীকে অতিরিক্ত মুনাফা ও স্বপ্লমূল্যে সিগারেট কিনে দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে হাসিব শেখ ৫৩ লাখ ৮৮ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়ে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায়। এঘটনায় মাসুদ ইপিজেড থানায় প্রতারণা ও অর্থআত্মসাতের মামলা দায়ের করেন। আমরা মামলাটি ছায়া তদন্ত শুরু করি। তদন্তের এক পর্যায়ে তার অবস্থান রাজশাহীতে নিশ্চিত হয়ে আমরা অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করি। পুত্রের অপরাধে সহযোগিতার জন্য পিতাকেও আইনের আওতায় আনা হয়েছে।

পিবিআই সূত্রে জানা গেছে, হাসিব শেখ ও তার পিতাকে চট্টগ্রাম চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হলে তারা অপরাধ স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm