চট্টগ্রামে বিমানের ইঞ্জিনে পাখি, বাতিল দুই ফ্লাইট

0

কারিগরি ত্রুটি দেখা দেয়ায় চট্টগ্রাম শাহ আমানত আর্ন্তজাতিক বিমানবন্দর থেকে উড়তে পারেনি দুটি ফ্লাইট। একটি সংযুক্ত আরব-আমিরাত ভিত্তিক ফ্লাই দুবাই, আরেকটি রাষ্ট্রায়ত্ত্ব বাংলাদেশ বিমান।

দুটি উড়োজাহাজে মোট ৪২৭ যাত্রী ছিল। ফ্লাই দুবাই উড়োজাহাজটি রাত সাড়ে ৯টায় দুবাইয়ের উদ্দেশ্যে এবং বাংলাদেশ বিমানের ফ্লাইটটি রাত সাড়ে ১০টায় ওমানের রাজধানী মাস্কাটের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়ার কথা ছিল। পরে দুটি ফ্লাইটই বাতিল করা হয়েছে।

শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শাহ আমানত বিমানবন্দরের পরিচালক উইং কমান্ডার ফরহাদ হোসেন খান।

ফরহাদ হোসেন খান জানান, ‘সাড়ে আটটায় ফ্লাই দুবাই উড়োজাহাজটি চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে যাত্রী নিয়ে অবতরণ করে। যাত্রী নামিয়ে আবারো দুবাইয়ের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়ার জন্য ১৮০ যাত্রীর ইমিগ্রেশন সম্পন্ন হয়েছিল।

কিছু যাত্রী বিমানেও উঠেছিল। এরইমধ্যে নিয়মিত উড়োজাহাজ চেক আপ করতে গিয়ে একটি ত্রুটি ধরা পড়ে। ধারণা করা হচ্ছে উড়োজাহাজের ইঞ্জিনে পাখি ঢুকেছে। এই অবস্থায় ফ্লাইটটি উড়াল দেয়ার সিদ্ধান্ত বাতিল করা হয়েছে।

বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ফ্লাই দুবাই প্রতিদিন সকাল ও রাতে দুটি ফ্লাইটে চট্টগ্রাম-দুবাই রুটে যাত্রী পরিবহন করে। যথাসময়ে গতকাল বৃহষ্পতিবার রাতের ফ্লাইটটি অবতরণ করে যাত্রী নামানোর পরও ত্রুটি ধরা পড়েনি। পরে নিয়মিত চেক আপের সময়ই পাখি ঢুকে পড়ার বিষয়টি জানতে পারেন পাইলট।

বিমানবন্দর পরিচালক বলেন, একই অবস্থা ঘটেছে বাংলাদেশ বিমানের মাস্কাট ফ্লাইটের। যাত্রী নিয়ে ঢাকা থেকে রওনা দেয়ার পর চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে অবতরণ করে বোয়িং ৭৭৭ ফ্লাইট। পরে ২৪৭ যাত্রী ইমিগ্রেশন সম্পন্ন করে বিমানে উঠছিল। এই সময় উড়োজাহাজটি নিয়মিত চেক আপ করতে গিয়ে ইঞ্জিনে পাখি ঢুকে যাওয়ার বিষয়টি ধরা পড়ে। পরে সেই ফ্লাইটটি বাতিল করা হয়। ফ্লাইটের যাত্রীদের হোটেলের ব্যবস্থা করা হয়।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বিমানের ইঞ্জিনে আটকে যাওয়া পাখি বের করার চেষ্টা করছেন প্রকৌশলীরা।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm