চবিতে ‘অর্থনৈতিক উন্নয়নে নারীর ভূমিকা’ শীর্ষক সেমিনার

0

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ‘বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে নারীর ভুমিকা’ শীর্ষক সেমিনার আনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে নারী ক্ষমতায়নের ফলে দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির নানা দিক তুলে ধরা হয়।
বৃহস্পতিবার (৯ মার্চ) দুপুর দেড়টায় ইয়াং ইকোনোমিস্ট সোসাইটি’র উদ্যোগে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান অনুষদের অর্থনীতি বিভাগের ৩০৫ নং কক্ষে আনুষ্ঠিত হয় এই সেমিনার।
এতে সভাপতিত্ব করেন ইয়াং ইকোনোমিস্ট সোসাইটি’র সভাপতি সুমাইয়া রেজা রুহানি।

ইয়াং ইকোনোমিস্ট সোসাইটি’র সাধারণ আনোয়ার হোসেনের সঞ্চালনায় এতে প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চবি অর্থনীতি বিভাগের পিএইচডি গবেষক ড. সুমা ধর।
এসময় ড. সুমা ধর নারী ক্ষমতায়নের বাধা হিসেবে পুরুষতান্ত্রিক সমাজের মানসিকতাকে দায়ী করেন৷ বাংলাদেশের সমাজে নারী শিক্ষার প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরে তিনি বলেন, নারীরা যত বেশি শিক্ষিত হতে পারবে, নারী ক্ষমতায়ন তত বেশি নিশ্চিত হবে।

তিনি বাংলাদেশের তৈরি পোষাক শিল্পে নারীদের অবদান তুলে ধরে বলেন, করোনা মহামারীর পূর্বে গার্মেন্টস সেক্টরে ৪ দশমিক ২ মিলিয়ন কর্মী কাজ করত, যার মধ্যে ৮০% ছিল নারী। কিন্তু, করোনার কারণে তা কমে ৬০ শতাংশে নেমেছে।

তিনি আরো বলেন, আপাত দৃষ্টিতে তাকালে মনে হয় সরকার নারীদের অনেক সুবিধা নিশ্চিত করেছে, তাদেরকে ভালো অবস্থানে রেখেছে কিন্তু, গার্মেন্টস সেক্টরে নারীরা কি পরিমাণ শারীরিক ও মানসিক ভোগান্তির শিকার হচ্ছে তা খালি চোখে অনুধাবন করার সুযোগ নেই, বিনিময়ে তারা অল্প মজুরি পায়, যা পুরুষদের তুলনায় অনেক কম।

বাংলাদেশের নারীদের অগ্রগতি নিয়ে তিনি বলেন, জনসংখ্যায় নারীরা পুরুষের থেকে বেশি হলেও শিক্ষায় এবং ক্ষমতায়নে পিছিয়ে রয়েছে। এবিষয়ে সরকারের নীতি নির্ধারণী কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনি বলেন, নারীর ক্ষমতায়নে যেসব নীতি গ্রহণ করা হয়েছে তা যেন পুরোপুরি বাস্তবায়ন করা হয়। তাহলে উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে বাংলাদেশ এগিয়ে যেতে পারবে।

ড. সুমা ধর আরও বলেন, অনেক ক্ষেত্রে নারীবান্ধব পরিবেশ না থাকার জন্য সমান যোগ্যতা থাকা সত্ত্বেও নারীরা কাজ করার সুযোগ পায় না বা কাজ নিতে চায় না। একটি দেশের অর্থনীতিতে ভূমিকা রাখতে হলে নারীদের প্রথমে শিক্ষিত হতে হবে। পাশাপাশি এমন একটি পরিবেশ তৈরি করতে হবে যেখানে নারী-পুরষের সমতা থাকবে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ইয়াং ইকোনোমিস্ট সোসাইটির প্রধান উপদেষ্টা ও অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আবুল হোসাইন, একই বিভাগের অধ্যাপক ড. এ.এইচ.এম. সেলিমউল্লাহ্, সহযোগী অধ্যাপক ড. নঈম উদ্দিন হাছান আওরঙ্গজেব চৌধুরী, সহযোগী অধ্যাপক ঝুলন ধর, প্রভাষক কাজী মেজবাহ উদ্দিন আহমদ, প্রভাষক খালেদা বেগম মাইফুল, প্রভাষক নৌশিন ফারজানা হুদা চৌধুরী, প্রভাষক ফাতেমা আক্তার হীরামনি, প্রভাষক মোঃ আফতাব হোসেন।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ইয়াং ইকোনোমিস্ট সোসাইটি’র সহ-সভাপতি হুসাইন তন্ময়, বর্ণিক বৈশ্য, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সায়েদা তাসফিয়া নুর (চৈতী), কার্যনির্বাহী সদস্য আফতাব, রুবেলসহ ইয়াং ইকোনোমিস্ট সোসাইটি’র অন্যান্য সদস্যবৃন্দ।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm