চবির ভর্তি পরীক্ষায় ‘গলাকাটা ভাড়া’, প্রধান ফটকে ছাত্রলীগের তালা

0

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ভর্তি পরীক্ষা দিতে আসা শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের কাছ থেকে অতিরিক্ত গাড়ি ভাড়া আদায়, খাবারের মূল্যবৃদ্ধি, বিদ্যুৎ বিভ্রাটসহ বিভিন্ন বিষয়ের প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক অবরোধ করেছে শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

বুধবার (১৭ মে) রাত সাড়ে ৮টায় ফটক অবরোধ করেন তারা। এ সময় তারা বিভিন্ন স্লোগানে স্লোগানে মুখরিত করে তুলেন বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। প্রতিবেদন লিখা পর্যন্ত ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা প্রধান ফটক অবরোধ করে বিক্ষোভ চালিয়ে যাচ্ছেন।

জানা গেছে, ভর্তি পরীক্ষা উপলক্ষ্যে গত ১৫ মে থেকেই ক্যাম্পাসে হাজারো ভর্তিচ্ছুর আনাগোনা শুরু হয়েছে। এই সুযোগে ইচ্ছামতো খাবারের দাম ও রিকশা ভাড়া আদায় করছে অসাধু ব্যবসায়ী এবং রিকশাচালকরা। ভর্তি পরীক্ষা সামনে রেখে খাবারের দাম ও যানবাহনের ভাড়া নির্ধারণ করে দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। তবে তা মানতে নারাজ ক্যাম্পাসের হোটেল ব্যবসায়ীরা। এছাড়া ক্যাম্পাসের রিকশাচালকরা নির্ধারিত ভাড়ার থেকে কয়েক গুণ বেশি চাচ্ছেন নবাগতদের থেকে। বেশি ভাড়া না দিলে কোনো চালকই যেতে রাজি হচ্ছেন না। তাই অসহায় হয়ে অতিরিক্ত মূল্যেই গন্তব্যে যেতে হচ্ছে ভর্তিচ্ছুদের।

সরেজমিন দেখা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের এক নম্বর গেট থেকে জিরো পয়েন্ট পর্যন্ত রিকশা ভাড়া ৩০ টাকা। কিন্তু এখন চাওয়া হচ্ছে ১২০-১৫০ টাকা। জিরো পয়েন্ট থেকে যে কোনো ছাত্রী হলের ভাড়া ১৫ টাকা। তা এখন হয়ে গেছে ৫০ থেকে ৭০ টাকা। এভাবে প্রতি গন্তব্যে ৫০ থেকে ৬০ টাকা ভাড়া বাড়িয়ে নিচ্ছেন চালকরা। অন্যদিকে, শহর থেকে ক্যাম্পাসে বাস মালিক সমিতি নির্ধারিত ৩ নম্বর বাসে ভাড়া ২০ টাকা এবং দ্রুতযানে ৪০ টাকা। সেই ভাড়া এখন নেওয়া হচ্ছে ৪০ এবং ৬০ টাকা করে।

এদিকে ভর্তি পরীক্ষা চলাকালীন অতিরিক্ত ভাড়া দাবি করায় ৯ বাস ও সিএনজি চালককে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। বুধবার (১৭ মে) সাড়ে ৫টার দিকে জিরো পয়েন্ট পুলিশ বক্সে এ জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শাহিদুল আলম।

চবির ভর্তি পরীক্ষায় ‘গলাকাটা ভাড়া’, প্রধান ফটকে ছাত্রলীগের তালা 1

বিষয়টি নিশ্চিত করে প্রক্টর ড. নূরুল আজিম সিকদার বলেন, অতিরিক্ত ভাড়া দাবি করায় ৮ বাস চালককে ৫০০ টাকা করে ৪ হাজার এবং এক সিএনজি চালককে এক হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। ভর্তি পরীক্ষার সময় কোনো পরিবহন বাড়তি ভাড়া দাবি করলে সাথে সাথে প্রশাসনকে জানানোর জন্য শিক্ষার্থীদের আহ্বান করেন তিনি।

প্রসঙ্গত, গত ১৬ মে থেকে শুরু হয়েছে চবির ভর্তি পরীক্ষা। ১৬ ও ১৭ মে বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘এ’ ইউনিট, ১৮ ও ১৯ মে কলা ও মানববিদ্যা অনুষদভুক্ত ‘বি’ ইউনিট, ২০ মে ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদভুক্ত ‘সি’ ইউনিট এবং সকলের জন্য উন্মুক্ত ‘ডি’ ইউনিটের ভর্তি অনুষ্ঠিত হবে ২২ মে। এছাড়া ‘ডি-১’ ও ‘বি-১’ উপ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ২৪ মে ও ২৫ মে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।