চবির হলের খাবারে মিললো পোকা

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) শাহ আমানত হলের ডাইনিংয়ের খাবারে আস্ত পোকা পেয়েছেন এক শিক্ষার্থী। গতকাল বুধবার (২৯ মে) দুপুরের খাবার খেতে গিয়ে রান্না করা ঢেঁড়সের ভেতরে পোকাটি দেখতে পান ওই শিক্ষার্থী।

এ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ভিত্তিক একটি গ্রুপে পোস্টের পর শুরু হয়েছে সমালোচনা। ফেসবুকে তিনি লিখেন, আপনারা কি বিয়ার গ্রিলস দেখতে চান? তাহলে চবির হলের খাবার খাওয়া মানুষগুলোকে দেখুন। ওরা সবাই একেকটা বিয়ার গ্রিলসের জীবন্ত উদাহরণ। কারণ তারা খাবার খাওয়ার সময় কত কত পোকামাকড় খায় তারা নিজেরাই জানে না৷ আমি খাওয়ার সময় এই মহাশয়কে আমাকে পরিবেশন করা ঢেঁড়সে আবিষ্কার করলাম৷

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মাইয়াজ চৌধুরী নামের ২২-২৩ শিক্ষাবর্ষের ঐ শিক্ষার্থী বলেন, দুপুরে ডাইনিংয়ে খেতে গিয়েছিলাম তখন আমার যে খাবারে দুইটা ঢেঁড়স ছিলো। একটা টুকরো করা আরেকটা আস্ত। এরপর আস্তটা খুলে দেখি ওটার ভেতরে পোকা।

এ ব্যাপারে কোনো অভিযোগ করেছে কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ ব্যাপারে কোনো অভিযোগ করিনি, অভিযোগ করলেও যে কিছু একটা হবে না এটা পরিষ্কার।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ডাইনিং ম্যানেজার শেখ আব্দুল মান্নান বলেন, এটা অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটে গেছে। মাঝেমধ্যে এরকম অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটতেই পারে। বিষয় টা এমন নয় যে এটা প্রতিনিয়ত ঘটছে। তাছাড়া এ ব্যাপারে আমাকে কেউ কিছু জানায়নি।

তিনি আরও বলেন, অন্যান্য হলের তুলনায় আমানত হলের ডাইনিং অনেকটা পরিষ্কার থাকে সবসময়।এ বিষয়টা অনাকাঙ্ক্ষিত।

আমানত হলের প্রভোস্ট প্রফেসর নির্মল কুমার সাহা বলেন, খাবারে পোকা পাওয়া তো ভালো লক্ষণ না। এ ব্যাপারে আমার কাছে কোনো অভিযোগ আসেনি এখনো তবে আজকেই আমি ম্যানেজারকে এ ব্যাপারে জিজ্ঞেস করব।তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, এর আগে গতবছর বিশ্ববিদ্যালয়ের সোহরাওয়ার্দী হলের ডাইনিংয়ের খাবারে সিগারেটের অবশিষ্টাংশ পাওয়া গিয়েছিল

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।