চসিকের জন্ম নিবন্ধন সনদ জালিয়াতি চক্রের আরও ২ সদস্য গ্রেপ্তার

0

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) জন্ম নিবন্ধন সনদ জালিয়াতি চক্রের আরও দুই সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপির) কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট। এ সময় তাদের কাছে জালিয়াতির কাজে ব্যবহৃত ২টি সিপিইউ, ২টি মনিটর, ২টি প্রিন্টার এবং একটি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়েছে।
গ্রেপ্তাকৃতরা হলেন, মনি দেবী ও মো. রাকিব হোসেন হিমেল।

বৃহস্পতিবার (২৬ জানুয়ারি) বিষয়টি চট্টগ্রাম খবরকে নিশ্চিত করেন সিএমপির অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (কাউন্টার টেরোরিজম) আসিফ মহিউদ্দীন। তিনি বলেন, দীর্ঘদিন বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে আটক ব্যক্তিরা চক্রের অন্যান্য সদস্যের সহায়তায় ভুয়া জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি কার্যক্রম চালিয়ে আসছিলেন। এ পর্যন্ত তারা একাধিক ভুয়া জন্ম নিবন্ধন সনদ সৃজন ও বিতরণ করেছেন। সরকার নির্ধারিত ওয়েব সাইটে ব্যক্তির ভুয়া ঠিকানা ব্যবহার করে প্রাথমিক নিবন্ধন করে। নিবন্ধন করে তথ্য তাদের চক্রের সদস্যকে ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপের মাধ্যমে প্রদান করে। জাল জন্ম সনদ প্রস্তুত করে চক্রের সদস্য অবৈধভাবে জন্মনিবন্ধন সার্ভারে প্রবেশ করে পুনঃরায় চক্রের সদস্যদের কাছে প্রেরণ করে। তাদের মতো এমন আরও একাধিক চক্র দেশে এ ধরনের কার্যক্রমে জড়িত। টাকার বিনিময়ে ভুয়া জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি করে থাকে চক্রটি।

তিনি আরও বলেন, গ্রেপ্তারদের বিরুদ্ধে চসিক ১১ নম্বর ওয়ার্ডের জন্ম নিবন্ধন সহকারী মো. রহিম উল্ল্যাহ চৌধুরী বাদী হয়ে নগরের হালিশহর থানায় মামলা দায়ের করেছেন। মো. রাকিব হোসেনের বিরুদ্ধে আগেও ভুয়া জন্ম সনদ জালিয়াতির মামলা রয়েছে। চক্রের অন্যান্য সদস্যদের গ্রেফতার করতে অভিযান চলমান রয়েছে।

এর আগে, গত ২৪ জানুয়ারি এক প্রেস ব্রিফিংয়ে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের জন্ম নিবন্ধন সনদ জালিয়াতি চক্রের ৪ সদস্যকে গ্রেপ্তার করে বলে জানায় সিএমপির কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট।

আরও পড়ুন: চসিক কাউন্সিলরদের বেহাত হওয়া আইডি-পাসওয়ার্ডে ৫ হাজার সনদ—গ্রেপ্তার ৪

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।