ছাত্রলীগ নেতাকে মারধর, প্রধান ফটক-শাটল অবরোধ–অচল চবি

0

শেষরাতে দুর্বৃত্তের হামলার শিকার হয়েছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) শাখা ছাত্রলীগের উপগ্রুপ ভার্সিটি এক্সপ্রেসের (ভিএক্স) নেতা প্রদীপ চক্রবর্তী দুর্জয় ও সাবেক নেতা মোহাম্মদ রাশেদ। এ ঘটনায় পুরো ক্যাম্পাসজুড়ে আতংক বিরাজ করছে।

বিশ্ববিদ্যালয়গামী শাটল ট্রেন আটকে দিয়েছে ভিএক্স গ্রুপের নেতাকর্মীরা। এছাড়াও মূল ফটক, দুই নাম্বার গেইট ফটকে তালা দেয়ার পাশাপাশি প্রধান সড়ক ও জিরো পয়েন্ট থেকে সবদিকের রাস্তায় গাছের গুড়ি ফেলে অবরোধ করেছে আন্দলোন করছে তারা।

মঙ্গলবার (৩১ মে) দিবাগতরাত ৩ টার দিকে মোটরসাইকেল যোগে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আসার সময় মাঝপথে হামলার শিকার হন এ দুজন। এসময় তাদের মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়। পরে তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টার থেকে চিকিৎসা নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

ঘটনার পর পরেই রাত সাড়ে তিনটা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক আটকে দিয়ে আন্দোলন করে ভিএক্স গ্রুপের নেতাকর্মীরা।

বুধবার (১ জুন) সকাল ৭টায় দুই নাম্বার গেইট ফটকও আটকে দেয় তারা। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়গামী শাটল ট্রেনে ষোলশহর স্টেশনে এসে পৌছালে সেখানে শাটল ট্রেনও আটকে দেয় নেতাকর্মীরা।

এদিকে এ ঘটনার জন্য স্থানীয় ডিস ও ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট ব্যাবসায়ী হানিফকে দুষছেন হামলার শিকার দুর্জয়।
তিনি বলেন, আমি ও সাবেক নেতা রাশেদ ভাই রাতে বাইকে করে আসছিলাম এমন সময় স্থানীয় ডিস ও ওয়াইফাই ব্যাবসায়ী হানিফের লোকজন আমার উপর অতর্কিত হামলা চালিয়েছে।

অভিযুক্ত হানিফ ফতেহপুর ইউনিয়নের ৩ নম্বার ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সদস্য বলে জানা গেছে।
এ বিষয়ে অভুযুক্ত মোহাম্মদ হানিফ বলেন, আমি রাত্রে ঘুমে ছিলাম। এসবের কিছুই জানিনা। সকালে ঘুম থেকে উঠে শুনতেছিন আমাকে মারধরের জন্য অভিযুক্ত করা হচ্ছে।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত প্রশাসনের কেউ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হননি।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm