নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন নজিবুল বশর ভান্ডারী

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন চট্টগ্রাম-২ (ফটিকছড়ি) আসনের প্রার্থী ও চৌদ্দদলীয় জোটের অন্যতম শরিকদল বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী। বৃহস্পতিবার (৪ জানুয়ারি) সকালে ফটিকছড়ির মাইজভান্ডার দরবার শরীফের গাউসিয়া রহমান মঞ্জিলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন করে ভোট থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন তিনি।

লিখিত বক্তব্যে সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী বলেন, ফটিকছড়িতে আমি ৪ বারের মধ্যে তিনবারই নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচিত হয়েছি। এই নৌকার মাধ্যমে আমি বারবার সম্মানিত হয়েছি। যেহেতু ১৪ দলীয় জোট নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতিমধ্যেই ফটিকছড়িতে নৌকা প্রতীকের সমর্থন পুনর্ব্যাক্ত করেছেন সেহেতু উনার প্রতি সম্মান জানানো আমার নৈতিক দায়িত্বও বটে। এমতাবস্থায় ফটিকছড়িতে নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে নির্বাচন করা আমি সমীচিন মনে করছি না। তাছাড়াও আমি যদি নির্বাচনী মাঠে থাকি তাহলে ভোটের যে সমীকরণ হবে, সেখানে আমার প্রাপ্ত ভোটের জন্য নৌকার বিজয় নিশ্চিতকরণে বাঁধার কারণ হতে পারে বলে আমি মনে করি।

তিনি বলেন, সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে ১৪ দলীয় জোটের প্রধান প্রধানমন্ত্রীকে সম্মান জানিয়ে ফটিকছড়ির সার্বিক উন্নয়নে ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখার নিমিত্ত্বে আমি সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভাণ্ডারী আগামী ৭ জানুয়ারির নির্বাচন থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলাম। আমি সব সময় ফটিকছড়িবাসীর সুখে-দুঃখে পাশে ছিলাম, আছি ও থাকব।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন দলটির ভাইস চেয়ারম্যান সৈয়দ তৈয়বুল বশর মাইজভান্ডারী, নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সমন্বয়ক কাজী মোরশেদ, তরিকত ফেডারেশনের ফটিকছড়ি উপজেলার আহবায়ক আলমগীর আলম ও সদস্য সচিব মো. শাহজালাল, পাইন্দং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম সরওয়ার হোসেন স্বপন প্রমুখ।

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।