পটিয়ার ছনহরা ইউপির উপ-নির্বাচনে নৌকার টিকেট পেলেন রাসেল

0

পটিয়া উপজেলার ছনহরা ইউপিতে উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রতীকে মনোয়ন পেলেন সদ্য প্রয়াত ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. সামসুল আলমের ছেলে মো. মামুনুর রশিদ রাসেল।

শুক্রবার (১৩ মে) ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডয়ের সভায় তাকে মনোনয়ন দেওয়া হয়।

এর আগে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে এ সভা শুরু হয় বিকেলে। এতে সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রাতে আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত আওয়ামী লীগের মনোনীত দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থীদের তালিকায় ছনহরা ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচনে মামুনুর রশীদ রাসেলের নাম দেখা যায়।

মো. মামুনুর রশিদ রাসেল ছনহরা ইউপির আলমদার পাড়া গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম মো. সামশুল আলম ও মরহুমা জেসমিন আক্তারের বড় ছেলে। রাসেল ছনহরা ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহাবায়কের দায়িত্ব পালন করছেন।

এর আগে তিনি ১৯৯৭ সাল থেকে ১৯৯৯ পর্যন্ত পটিয়া সরকারী কলেজ ছাত্রলীগের সহ সভাপতি, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড ফোরামের চট্টগ্রাম জেলা শাখার সহ-সভাপতি, মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম সংসদ চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, কুসুম কলি পটিয়া উপজেলার শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন।

দলীয় মনোয়ন পেয়ে উচ্ছাস প্রকাশ করে রাসেল চট্টগ্রাম খবরকে বলেন, আমার বাবা দেশ মাতৃকার টানে ১৯৭১ সালে পাক হানাদার বাহীনীর বিরুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন। আমার বাবা সবসময় দেশ ও দেশের মানুষের পাশে ছিলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমার বাবাকে জীবদ্দশায় দলীয় নৌকা প্রতীক দিয়েছিলেন। এলাকার মানুষ তাঁকে বিপুল ভোটে জয়ী করেছেন।

তিনি আরও বলেন, আমার বাবা মৃত্যুতে ছনহরা ইউপিতে চেয়ারম্যান শূন্য হয়ে যাওয়ায় আমি তাঁর লালিত স্বপ্নকে বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রীর কাছে দলীয় মনোয়ন চেয়েছিলাম। তিনি আমাকে মূল্যায়ন করেছেন। আমি নির্বাচিত হয়ে সকল মানুষের দুঃখ লাঘব করে সমাজ ব্যবস্থাকে একটি রোল মডেলে পরিনত করবো। সকলেই আমার জন্য দোয়া করবেন এবং আগামী ১৫ জুন নির্বাচনে বিপুল ভোটে আমাকে জয়যুক্ত করার জন্য সকলের নিকট অনুরাধ করছি।

প্রসঙ্গত, চতুর্থ ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে গত ২৬ ডিসেম্বর পটিয়ায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ভোটের দিন ভোট কারচুপি ও অনিয়মের অভিযোগ এনে ছনহরায় দুটি কেন্দ্র ধাউরডেঙ্গা সারদা চরন উচ্চ বিদ্যালয় ও রমেশ-ফনিন্দ্র স্মৃতি পাঠাগার কেন্দ্রে পুনরায় ভোট গননার নির্দেশ দেন নির্বাচন কমিশন। এরপর চলতি বছরের ৭ই ফেব্রুয়ারী ফের এ দুটি কেন্দ্রে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলে নৌকার প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা সামশুল আলম তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আনারস প্রতীকের প্রার্থী আবদুর রশিদ দৌলতিকে বিপুল ভোটে পরাজিত করেন। শপথের কয়েকদিন পর বীর মুক্তিযোদ্ধা সামশুল আলম মারা গেলে পুনরায় ভোট গ্রহনের জন্য তফসিল ঘোষণা করেন নির্বাচন কমিশন।

নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, পটিয়া উপজেলার ছনহরা ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণ হবে আগামী ১৫ জুন। তফসিল অনুযায়ী রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়ন দাখিলের শেষ তারিখ ১৭ মে, রিটার্নিং কর্মকর্তা কর্তৃক মনোনয়ন বাছাই ১৯ মে, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ২৬ মে। এরপর ১৫ জুন সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm