পাপ্পী-ববির লোকদের ইয়াবাসহ ধরলো পুলিশ, ছিনিয়ে নিলো ‘হিজড়া’ লেলিয়ে

0

চট্টগ্রামের কালুরঘাটে ইয়াবাসহ দেলোয়ার ও হানিফ নামের দুই ব্যক্তিকে আটক করার পর পুলিশ ফাঁড়িতে হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তদের একটি দল তাকে ছিনিয়ে নিয়েছে। শনিবার (১৯ নভেম্বর) রাতে চট্টগ্রাম নগরীর চান্দগাঁও থানার কালুরঘাট এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। আসামি ছিনিয়ে নেওয়ার সময় গোলাগুলি হয়েছে। এরপর আহত এক নারীর মৃত্যু খবর পাওয়া গেলেও রাত সাড়ে ১২টা পর্যন্ত প্রশাসন বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারেনি।

চান্দগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাঈনুর রহমান চৌধুরী চট্টগ্রাম খবরকে বলেন, হানিফ ও দেলোয়ারকে পাঁচ হাজার ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করে ফাঁড়িতে নেওয়ার পর প্রায় দেড়শ লোক মিলে ফাঁড়িতে হামলা চালিয়েছে। এক পর্যায়ে তারা আসামিদের ছিনিয়ে নেয়। পুলিশ চার রাউন্ড ফাঁকাগুলি ছোঁড়ে। হামলা পাঁচ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে, তাদের মধ্যে দুই জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

তিনি আরও বলেন, এই ঘটনায় আহত এক নারীর মৃত্যুর খবর জেনেছি। তবে তিনি হামলাকারীদের গুলিতে নিহত হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। আমাদের ফোর্স ফাঁকা গুলি ছুঁড়েছিল। আমরা চমেক হাসপাতালে গিয়ে ওই নারীর লাশ পাইনি

এই ঘটনায় পুলিশ বাদি হয়ে মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে বলেও জানান ওসি মঈনুর রহমান চৌধুরী।

আহত এক নারী ও একজন পুলিশ সদস্যের মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে পড়ে। দুই মৃত্যুর বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের কেউ নিশ্চিত করতে পারেননি।

ঘটনার পর ইয়াবাসহ আটক হানিফের সাথে বোয়ালখালী আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মনছুর আলম পাপ্পী ও মো. আলম ববির সাথে হানিফের ঘনিষ্ঠতার ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।
প্রতক্ষ্যদর্শীদের অনেকের দাবী, ফাঁড়িতে হামলায় সম্প্রতি বালু উত্তোলন সরঞ্জাম চুরি করতে গিয়ে মামলা ফেঁসে যাওয়া ব্যক্তিদের সম্পৃক্ততা রয়েছে। তারা হিজড়া সিন্ডিকেট নিয়ন্ত্রণ করে এবং তাদের দিয়ে মাদক ব্যবসা করার অভিযোগও বেশ পুরোনো।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm