বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ একই সূত্রে গাঁথা—চবি উপাচার্য

0

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার বলেছেন, বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ একই সূত্রে গাঁথা। এ মহান নেতা বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় এবং বাঙালি জাতিকে আত্মমর্যাদাশীল জাতিতে রূপান্তরে আমৃত্যু লড়াই-সংগ্রাম করে গেছেন। অন্যায়, অনিয়ম এবং দুঃশাসনের বিরুদ্ধে তিনি ছিলেন সবসময় সোচ্চার।

সোমবার (১৫ আগস্ট) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির ভাষণে এসব কথা বলেন তিনি ।

উপাচার্য আরো বলেন, জাতির পিতার দূরদর্শীতা, বিচক্ষণতা, রাজনৈতিক প্রজ্ঞা ও ত্যাগ-তিতিক্ষার ফসল বাংলাদেশ। এ বিশ্বনেতাকে সপরিবারে হত্যা করে হায়েনার দল চেয়েছিল বাংলাদেশকে বিশ্ব মানচিত্র থেকে মুছে ফেলতে কিন্তু তাদের এ বাসনা পূরণ হয়নি। বঙ্গবন্ধু তনয়া মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিশ্ববাসীর কাছে বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের অনুকরনীয় দৃষ্টান্ত।

এর আগে সকাল ১০টায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের পক্ষ থেকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার ও উপ-উপাচার্য (একাডেমিক) প্রফেসর বেনু কুমার দে। এসময় চবির বিভিন্ন অনুষদের ডিনবৃন্দ, চবি শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ, হলসমূহের প্রভোস্টবৃন্দ, বিভাগীয় সভাপতি, ইনস্টিটিউট ও গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালকবৃন্দ, কর্মকর্তা ও কর্মচারী সমিতির নেতৃবৃন্দসহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

এরপর বেলা ১১টায় চবি উপাচার্য দপ্তরের সম্মেলন কক্ষে ‘বঙ্গবন্ধু’র জীবন ও কীর্তি’ এবং ‘শোকাবহ ১৫ আগস্ট’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য (একাডেমিক) অধ্যাপক বেনু কুমার দে ও চবি বঙ্গবন্ধু চেয়ার অধ্যাপক ড. মুনতাসীর মামুন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক এস এম মনিরুল হাসান এবং সঞ্চালনা করেন চবি প্রক্টর ড. রবিউল হাসান ভুঁইয়া।

আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন চবির সাবেক উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ড. মো. আলাউদ্দিন, চবি আইন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আবদুল্লাহ আল ফারুক, চবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. সেলিনা আখতার, সিনেট সদস্য প্রফেসর ড. মো. সেকান্দর চৌধুরী, সিন্ডিকেট সদস্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ নাসিম হাসান, আলাওল হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ ফরিদুল আলম, ফিজিক্যাল এডুকেশন এন্ড স্পোর্টস সায়েন্স বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আবুল মনছুর, অফিসার সমিতির সভাপতি রশীদুল হায়দার জাবেদ, কর্মচারী সমিতির সভাপতি মো. সুমন ও কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মোহাম্মদ আলী হোছাইন প্রমুখ।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm