বন্যার্তদের সাহায্যে ‘দ্যা লার্নিং হাব’র ব্যতিক্রমী কর্মশালা আয়োজন

দেশের বন্যা কবলিত অঞ্চলের মানুষদের সহযোগিতায় এগিয়ে যাওয়ার জন্য ‘ওয়ার্কশপ অন সিভি রাইটিং এন্ড ইন্টারভিউ স্কিলস’ শীর্ষক অনলাইন কর্মশালার আয়োজন করতে যাচ্ছে ‘দ্যা লার্নিং হাব একাডেমী’।

আগামী রবিবার (২৬ জুন) রাত সাড়ে ৯টায় গুগল মিটে এ প্রশিক্ষণ কর্মশালা আয়োজিত হব। কর্মশালার প্রশিক্ষণ ফি জনপ্রতি ১০০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এ প্রশিক্ষণ ফি থেকে প্রাপ্ত অর্থ বন্যার্তদের সহযোগিতায় ব্যয় করা হবে।

ব্যতিক্রমী এ আয়োজনের বিষয়টি নিশ্চিত করে ‘দ্যা লার্নিং হাব একাডেমীর পরিচালক, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) রসায়ন বিভাগের শিক্ষার্থী তাকবীর হোসাইন বলেন, ”উক্ত ওয়ার্কশপ থেকে প্রাপ্ত সকল অর্থ ব্যয় করা হবে দেশের বিভিন্ন জেলায় বন্যার্ত মানুষের মাঝে।

তিনি বলেন, এই আয়োজনটি একটি ফান্ড রেইজিং কর্মশালা যেখানে শিক্ষার্থীরা সিভি/রিজুমে লেখার নিয়মাবলি এবং চাকরির সাক্ষাৎকার প্রস্তুতির বিষয়াবলী নিয়ে প্রশিক্ষিত হবে। একজন শিক্ষার্থী দক্ষতা অর্জনের পাশাপাশি বন্যা দুর্গত এলাকার মানুষের জন্য ও সাহায্য করতে পারে। আমরা এই ব্যতিক্রমী উদ্যোগের মাধ্যমে সাধ্য অনুযায়ী সম্বলহারা মানুষদের পাশে দাঁড়াতে চাই।”

প্রসঙ্গত, ‘দ্যা লার্নিং হাব একাডেমী বিগত কয়েকবছর ধরে ‘স্কিল অব দি গ্রেজুয়েটস’ স্লোগানকে ধারণ করে বাংলাদেশের গ্র্যাজুয়েট শিক্ষার্থীদের চাকরি বাজারে এগিয়ে রাখতে এবং উন্নত বিশ্বের সাথে তাল মেলাতে দক্ষতা বৃদ্ধি করার মতো গুরুত্বপূর্ণ কাজ করে যাচ্ছে। তাদের উল্ল্যেখযোগ্য কিছু কাজ হলো, ফ্রিল্যান্সিং কি কেন কিভাবে?, সীতাকুণ্ডের কেমিক্যাল বিস্ফোরণের পর ইমার্জেন্সি রেসপন্স হিসেবে ‘কেমিক্যাল সেফটি’ নিয়ে সচেতনতামূলক বিশেষ লাইভ সেশন, রোড টু মাইক্রোসফট, ডাটা এনালাইজিং ওইথ আর প্রোগ্রাম ইত্যাদি ওয়ার্কশপ। বর্তমানে দ্যা লার্নিং হাব একাডেমির ফেসবুক প্ল্যাটফর্মে যুক্ত আছে দশ হাজারের অধিক মেম্বার।

আয়োজনটি সম্পর্কে হাব একাডেমীর সদস্য এম. আতহার নূর বলেন, বাংলাদেশে বর্তমানে অসংখ্য তরুণ-তরুণী গ্র্যাজুয়েট দক্ষতা আর অভিজ্ঞতার অভাবে পিছিয়ে পড়ছে। অনুষ্ঠিতব্য ওয়ার্কশপটি করলে তরুণ শিক্ষার্থীরা শিক্ষা জীবনের সবচেয়ে ভালো সিভি বা রিজুম সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা এবং কর্মজীবনে পা রাখার প্রথম সিড়ি ইন্টারভিউ সম্পর্কে বাস্তবিক জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা সম্পর্কেও জানতে পারবে।

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।