ভূমি অফিসের বিরুদ্ধে মালিকানাধীন জমি দখলের অভিযোগ

0

বান্দরবানে ব্যাক্তিমালিকানাধীন খাস জমি আয়ত্তে নিতে সাইন বোর্ড স্থাপন করেছে বান্দরবান সদর উপজেলা ভূমি অফিস।

মঙ্গলবার (১৭ মে) সহকারী কমিশনার (ভূমি) তাসনীম জাহানের নেতৃত্বে বান্দরবান সদরের মেঘলা ভেনাস রিসোর্ট এলাকায় এক একর ভূমি আয়ত্তে নিতে ‘গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে ১নং খাস খতিয়ানভুক্ত সরকারি জমি’লিখা সাইনবোর্ড স্থাপন করা হয়।

জায়গার মালিক সাদেক হোসেন চৌধুরী বলেন, ভেনাস রিসোর্টের সামনে তার ক্রয়কৃত জায়গায় ভূমি দস্যুদের প্ররোচনায় অন্যায় ভাবে এসিল্যান্ড তাসনিম জাহানের নেতৃত্বে বান্দরবান সদর উপজেলা ভূমি অফিসের লোকজন নির্মাণাধীন স্থাপনাসহ জোরপূর্বক দখল করে সরকারি খাস ভূমি নামে সাইনবোর্ড স্থাপন করে।
তিনি আরো বলেন, এসিল্যান্ড অফিসে আমার নামে উক্ত জায়গার রেজিস্টার্ড বায়না দলিল আছে, যার ডকেট নম্বর ২৮৯।

জায়গার পূর্বের মালিক মোস্তফা মিনহাজ জানান, তার নামের ৪০ শতক জায়গা থেকে কামাল হোসেন ও মো: জসিমের নিকট সমভাগে ২০ শতক জায়গা বিক্রি করেন। পরে জসীম তার অংশ সাদেক হোসেনের নিকট বিক্রিয় করে। দলিল ও চৌদ্দি কে বি (কেরানীহাট-বান্দরবান) সড়ক অনুসারে সাদেক হোসেনকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়।

এর আগে হোল্ডিং নম্বর অনুসারে প্রথমে আবু ছাফা ১৬৮ হোল্ডিং, ২য় তে সৈয়দ মোজাফর ১৬৯ হোল্ডিং ও ৩য় তে আইয়ুব চৌধুরীর ১৭০ হোল্ডিং ঠিক থাকলেও সাবেক ভূমি কর্মকর্তা সৈয়দ মোজাফর এর মধ্যবর্তী ১৬৯ হোল্ডিং এর জায়গাটি খাস দেখিয়ে গত ২ মার্চ সহকারী কমিশনার (ভূমি) কর্মকর্তা তাসনীন জাহান, খাস খতিয়ান ভুক্ত জায়গা দাবি করে সাইনবোর্ড টাঙ্গিয়ে দেন।

তিনি আরো বলেন, দুই পাশের হোল্ডিং নম্বর ১৬৮ ও ১৭০ সঠিক থাকলে আমার ১৬৯ নাম্বার হোল্ডিং সঠিক নেই তা খুবই দুঃখ জনক।

বান্দরবান সহকারী কমিশনার (ভূমি) তাসনীম জাহান বলেন, একটি মামলা সুত্রে জানতে পারি এখানে এক একর সরকারি খাস জায়গা রয়েছে। সরকারি এ খাস জায়গা দখল মুক্ত করে রক্ষা করতে দায়িত্ব পালন করছি মাত্র। তবে কেউ যদি উপযুক্ত দলিল উপস্থাপন করতে পারে তাকে হস্থান্তর করা হবে বলে জানান তিনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm