রাঙ্গুনিয়ায় আগুনে পুড়েছে ১৫ বসতঘর

0

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ার চন্দ্রঘোনা ইউনিয়নের আগুনে পুড়েছে ১৫ বসতঘর। বৃহস্পতিবার ( ৩১ মার্চ) বিষয়টি নিশ্চিত করেন রাঙ্গুনিয়া ফায়ার সার্ভিস স্টেশন অফিসার কামরুজ্জামান সুমন।

বুধবার (৩০ মার্চ) রাত আড়াইটার দিকে খোন্দকার পাড়ার মল্লাপাড়া গ্রামে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

আগুনে যাদের ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো হলো- মাহাবুল আলম, শহিদুল, জাকারিয়া, মো. আবু, রশিদ আহমেদ, নুর আমিন, রোস্তম আলী, আবুল কাশেম, জসিম উদ্দিন, আবদুল মোতালেব, আবদুল জলিল, আবদুল জব্বার, শাহেদা আকতার, আবদুস সালাম, মো. রনি, লেদা বাচা।

পুড়ে যাওয়া বসতঘরের মালিক মাহাবুল আলম জানান, রাতে ঘুমানোর পর গভীর রাতে হঠাৎ আগুনের শিখা দেখতে পেলে হইহট্টগোল তৈরি হয়। পরে পরিবারের সকলকে নিয়ে কোনরকমে ঘর থেকে বেড়িয়ে পড়ি। টিনের ছাউনি হওয়ায় আগুন দ্রুততার সাথে চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে। পরিবারের সকলে পড়নের কাপড় ছাড়া কিছু বের করতে সক্ষম হইনি। আমাদের সব শেষ হয়ে গেছে, সব নিয়ে গেছে আগুনে। এই ক্ষতি কাটিয়ে উঠবো কিভাবে জানিনা।

আরেক ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার আবুল কাশেম জানান, ঘুমের মধ্যে চারিদিকে আগুন আগুন শব্দ শুনতে পেলে ঘুম ভেঙে যায়। উঠে দেখি আকাশ লালচে হয়ে গেছে আর ধানের খড়ের মতো করে ছাই উড়তেছে। ফায়ার সার্ভিস আসার আগেই আমাদের সব তচনচ হয়ে গেছে।

রাঙ্গুনিয়া ফায়ার সার্ভিস স্টেশন কর্মকর্তা কামরুজ্জামান সুমন বলেন, রাত সাড়ে ৩টার দিকে আমরা আগুন লাগার সংবাদ পেয়ে সাথে সাথে ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। ততক্ষণে আগুনের লিলা চারিদিকে ছড়িয়ে পড়লে দীর্ঘ ২ ঘণ্টার প্রচেষ্টায় আমরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। তাঁদের ৫০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার দাবি করছে। তবে আমরা ধারণা করছি বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

এ বিষয়ে চন্দ্রঘোনা-কদমতলী ইউপি চেয়ারম্যান ইদ্রিচ আজগর বলেন, অগ্নিকাণ্ডের খবর পাওয়া মাত্রই রাতেই আমি ঘটনাস্থলে চলে যায়। এবং সার্বক্ষণিক এলাকাবাসিদের সাথে আগুন নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করি। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

তিনি আরও বলেন, আমি আজ সকালে পুড়ে ছাই হয়ে যাওয়া ঘর পরিদর্শন কর‍তে যায়। তথ্যমন্ত্রীর ড.হাছান মাহমুদ এমপির পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্ত ১৫ পরিবার গুলোকে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যে সামগ্রী চাল, ডাল, তেল, শাড়ি, লুঙ্গি এসব দিয়ে আসি।

এমএফ

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm