সীতাকুণ্ডে শিশু ধর্ষণ, সেই যুবক গ্রেপ্তার

0

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে ৯ বছরের এক শিশু ধর্ষণের অভিযোগে দায়ের হওয়া মামলা মো. শাহীন (১৯) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৭। বুধবার (৩০ মার্চ) জোরারগঞ্জ থানার বারৈয়ারহাট বাজার এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এরআগে রোববার (২৭ মার্চ) সকালে সীতাকুণ্ড মডেল থানায় শিশুটির বাবা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়ের হওয়ার ৩ দিনের মধ্যে র‌্যাব তাকে গ্রেপ্তার করে।

বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নুরুল আবছার।

গ্রেপ্তার শাহীন সীতাকুণ্ড উপজেলার ইয়াসিন নগরের মো. নেজাম উদ্দীনের ছেলে।

মামলা রুজু হওয়ার পর থেকে শাহীন নিজ এলাকা থেকে বিভিন্ন জায়গায় আত্মগোপন করতে থাকে। এ ঘটনায় শাহীনকে গ্রেপ্তারের জন্য র‌্যাব নজরদারি এবং ছায়া তদন্ত শুরু করে। আর শাহীন গ্রেপ্তার এড়ানোর জন্য বারৈয়ারহাট বাজার এলাকায় আত্মগোপন করে। তার অবস্থানের সংবাদ র‌্যাব জানতে পেরে অভিযান পরিচালনা করে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

তিনি আরও বলেন, আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদে সে ধর্ষণের সত্যতা স্বীকার করে। তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২৩ মার্চ দুপুরে ধর্ষণের শিকার শিশুটির বাবা-মা দুজনেই কাজে ছিলেন। এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে ম্যাজিক লাইট দেওয়ার কথা বলে শিশুটিকে ফুসলিয়ে নিজের ঘরে ডেকে নিয়ে যায় শাহীন। সেখানে নিয়ে দরজা বন্ধ করে উচ্চ শব্দে টেলিভিশন চালিয়ে শিশুটিকে ধর্ষণ করে সে। এক সময় শিশুর চিৎকারে আশপাশের মানুষজন চলে আসলে কৌশলে পালিয়ে যায় শাহীন।

এরপর গত ২৭ মার্চ সকালে সীতাকুণ্ড মডেল থানায় শিশুটির বাবা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০(সংশোধনী/২০০৩) এর ৯(১) এ মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং-৩৩ । গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় শিশুটি বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (চমেক) ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এমএফ

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm