হাসপাতালে গিয়ে সাংবাদিক দোস্ত মোহাম্মদকে সমঝোতার চাপ, অবস্থার অবনতি

ছাত্রলীগ নেতা খালেদ মাসুদ ও আরাফাত রায়হান এবং তাদের অনুসারীদের হামলায় আহত চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) সাংবাদিক দোস্ত মোহাম্মদের অবস্থার অবনতি ঘটেছে। বুধবার (২১ জুন) রাত আটটায় অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক পুনরায় ইসিজি করার পরামর্শ দেয়। এসময় তিনি প্রায় ঘন্টাখানেক অজ্ঞান ছিলেন।

এবিষয়ে চমেক হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক বলেন, হঠাৎ করে বুকে এবং এবডোমেনে ব্যাথা বেড়ে যাওয়ায় আমরা একটু চিন্তিত। ইসিজি করে সমস্যা দেখতে হবে। এছাড়া পরীক্ষায় আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গিয়েছে।

জানা গেছে, সন্ধ্যা ৭টার দিকে ছাত্রলীগের অভিযুক্তরা অনুসারিদের নিয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে উপস্থিত হয়ে বিষয়টি মিমাংসার জন্য দোস্ত মোহাম্মদকে চাপ দিতে থাকেন। এ ঘটনার পরপরই শারীরিক অবস্থার অবনতি হয় দোস্ত মোহাম্মদের। এসময় প্রায় ঘণ্টাখানেক সেন্সলেস অবস্থায় ছিলেন তিনি।

এর আগে ১৯ জুন রাতে চবিসাসের সদস্য সাংবাদিক দোস্ত মোহাম্মদের উপর ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বর্বরোচিত হামলা হত্যাচেষ্টা করে। অভিযুক্তরা হলেন- শাখা ছাত্রলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক খালেদ মাসুদ ও উপ-দপ্তর সম্পাদক আরাফাত রায়হানসহ ১০-১২ জন ছাত্রলীগ কর্মী।

অভিযুক্ত চবি ছাত্রলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক ও আইন বিভাগের ২০১৭-১৮ সেশনের শিক্ষার্থী খালেদ মাসুদ এর আগে ২০২১ সালেও শৃঙ্খলা ভঙ্গের ছয় মাসের জন্য বহিষ্কার হয়েছিলেন

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।