১২৫ টাকার বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি না করার অনুরোধ

চট্টগ্রামে ১২০-১২৫ টাকার বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি কোনভাবেই কাম্য নয় বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান। তিনি ব্যবসায়ীদের এই দামের বাইরে গিয়ে পেঁয়াজ বিক্রি না করার অনুরোধ করেছেন।

সোমবার (১১ ডিসেম্বর) বেলা ১২টার দিকে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত চট্টগ্রাম জেলার আমদানিকারকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এ অনুরোধ জানান।

তিনি বলেন, পেঁয়াজের বাজার নিয়ন্ত্রণে এখন থেকে চট্টগ্রামের চাক্তাই, খাতুনগঞ্জ ও পাহাড়তলীতে যেসব গোডাউন রয়েছে সব গোডাউনের তথ্য নেওয়া হবে। তালিকা ছাড়া কোনও গোডাউনে মালামাল পেলে সেগুলো সঙ্গে সঙ্গে জব্দ করবো। শুধু পেঁয়াজের ক্ষেত্রে নয়, চিনির ক্ষেত্রেও আমরা সব তথ্য চাইবো। সব কাগজে কলমে থাকবে হবে। কাগজপত্রহীন কোনও কিছুই আমরা ছাড় দিবো না।

তিনি আরও বলেন, গোডাউনে মালামাল যতই থাকুক না কেন, আমরা সেটির রশিদ চাইবো। রশিদ ছাড়া কোনও মালামাল পাওয়া গেলে সেগুলো আমরা নিলামে ন্যায্যমূল্যে জনসাধারণের মাঝে বিক্রি করে দিবো। বর্ডারে কারা এসব ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আমরা বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে চিঠি দিবো।

জেলা প্রশাসক সাধারণ জনগণকে ধৈর্য ধরার আহ্বান জানিয়ে বলেন, প্রয়োজনের অধিক পেঁয়াজ না কিনে পরিমিত ব্যবহার করান। একটু ধৈর্য ধারণ করতে হবে। বাজারে স্থিতিশীল পরিবেশ বজায় থাকবে।

ব্যবসায়ী নেতারা বলেন, পেঁয়াজের বাজার বর্ডারকেন্দ্রিক নিয়ন্ত্রণ হয়। সেখানে আমাদের হাত থাকে না৷ বর্ডার থেকে সে সিদ্ধান্ত আসে সে অনুযায়ী আমরা পেঁয়াজ বিক্রি করি। বর্ডারে ভারতীয় ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বাংলাদেশি ব্যবসায়ী যাদের ভালো সম্পর্ক, তারাই এসব ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করে। সরকার চাইলেই তাদের এ সিন্ডিকেট ভাঙতে পারে।

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।