পটিয়ায় আওয়ামী লীগ প্রার্থী ঋণখেলাপি, মনোনয়ন বাতিল

0

ঋণখেলাপি হওয়ায় পটিয়ার ছনহরা ইউপির উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মামুনুর রশিদ রাসেলের মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৯ মে) দুপুরে পটিয়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আরাফাত আল হোছাইনী তার মনোনয়ন বাতিল ঘোষণা করেন।

এসময় উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আরও জানান, ঋণখেলাপি হওয়ার কারণে যাচাই বাছাইয়ে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মামুনুর রশিদের মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে। স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুর রশিদ দৌলতী, মো. সাহাবুদ্দিন, মো. জাহিদুল হকের মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। তবে ব্যাংকে হিসাব না খোলায় মো. সাহাবুদ্দিনকে সময় দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মামুনুর রশিদ রাসেল বলেন, একটি ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডে অন্যজনের জিম্মাদার হিসেবে থাকাতে এ সমস্যা হয়েছে। ইতিমধ্যে আমি তা পরিশোধ করে দিয়েছি। আমার মনোনয়ন ফিরে পাওয়ার জন্য জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কাছে আপিল করবো।

প্রসঙ্গত, গত ২৬ ডিসেম্বর পটিয়া উপজেলার ১৭ ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে ছনহরায় ভোট কেন্দ্র দখল করে জোরপূর্বক ভোট নেওয়াসহ বিভিন্ন অভিযোগে ২টি ভোট কেন্দ্র বাতিল করা হয়। পরবর্তীতে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুর রশিদ দৌলতী আরও ৩টি ভোট কেন্দ্রে ভোট কারচুপির অভিযোগ তুলে নির্বাচন কমিশনে একটি লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত টিম এর সত্যতা পায় এবং আবদুর রশিদ দৌলতী উচ্চ আদালতে একটি রিট মামলা করেন। পরে গত ৭ ফেব্রুয়ারি স্থগিত ২টি ভোট কেন্দ্রের নির্বাচন সম্পন্ন করা হয়। নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা শামসুল আলম বিজয়ী হলেও এটি স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুর রশিদ দৌলতী প্রত্যাখান করে উচ্চ আদালতে যান। ওই মামলায় উচ্চ আদালত গেজেট স্থগিত করেছে। এর মধ্যে বিবাদী নৌকার প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা শামসুল আলম গত ২৫ মার্চ মারা গেলে উপ-নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের দলীয়ভাবে হিসেবে তার ছেলে মামুনুর রশিদ রাসেল মনোনয়ন পেয়েছেন। আগামী ১৫ জুন এই উপনির্বাচন।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm