বিচারক ও আদালত সংকট নিরসনে সরকারের আশু হস্তক্ষেপ প্রয়োজন

0

মানবাধিকার নেত্রী সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট এলিনা খান বলেছেন, পর্যাপ্ত কোর্ট সৃষ্টি ও বিচারক নিয়োগের মাধ্যমে সারা দেশে মামলার জট দ্রুত নিষ্পত্তি সম্ভব। এজন্য তিনি সরকারে আশু হস্তক্ষেপ দাবী করেন। দেশের প্রত্যেকটি ইউনিয়ন পরিষদ ও পৌরসভায় সালিশী মামলা নিষ্পত্তিতে দক্ষ আইনবিদ নিয়োগ দেওয়ারও দাবি করে তিনি।

শনিবার (৮ অক্টোবর) সকাল ১০টায় চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে আয়োজিত মানবাধিকার শাখা প্রতিনিধি ও কর্মী সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ দাবি জানান বাংলাদেশ হিউম্যান রাইটস্ ফাউন্ডেশন—বিএইচআরএফ চেয়ারপার্সন অ্যাডভোকেট এলিনা খান।

মানুষের বিচার প্রাপ্তিতে দীর্ঘসূত্রিতাকে বিচারহীনতার সাথে তুলনা করে তিনি সমাজ থেকে সকল প্রকার বৈষম্য দূরীকরণে একটি দক্ষ প্রশিক্ষিত মানবাধিকার নেটওয়ার্ক গড়ে তোলার প্রয়োজনীতার গুরুত্ব আরোপ করেন।

বিএইচআরএফ আয়োজিত উক্ত সম্মেলনে বৃহত্তর চট্টগ্রাম, তিন পার্বত্য জেলা, কক্সবাজার, কুমিল্লা, ঢাকা, নোয়াখালী, ফেনী, লহ্মীপূরসহ সারা দেশের বিভিন্ন শাখা প্রতিনিধি ও বিপুল সংখ্যক কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। প্রবীণ মানবাধিকার কর্মী সুনীল সরকারের সভাপতিত্বে ও মানবাধিকার আইনজীবী অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোঃ হারুনের সঞ্চালনায় সম্মেলনে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের বোর্ড অব ট্রাস্টি ও পরিচালক (অর্গানাইজিং) অ্যাডভোকেট জিয়া হাবীব আহ্সান।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখে বিএইচআরএফ এর প্রতিষ্ঠাতা ও বোর্ড অব ট্রাষ্টি মেম্বার অ্যাডভোকেট সরকার আসিফ পিয়াল। অনুষ্ঠানে আইন সহায়তা প্রাপ্ত ভিকটিম পরিবারের সদস্যরা বক্তব্য রাখেন। করোনাকালে মানব সেবায় সাহসী ভূমিকার জন্য ডা. মাহমুদা আফরোজা ও মাহমুদূর রহমান শাওন দম্পত্তিকে মানবাধিকার দম্পতি সম্মাননা এবং হাইড্রোলিক হর্ণ নিষিদ্ধের দাবীতে আন্দোলনরত অধিকার সৈনিক সুজন বড়ুয়াকে মানবাধিকার সম্মাননা পদক প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে মৃত্যুবরণকারী শাখা সদস্যদের মৃত্যূতে নীরবতা পালন ও শোক প্রকাশ করা হয়। অনুষ্ঠানে তিন পার্বত্য জেলা শাখা সহ অন্যান্য জেলা, উপজেলা, থানা, পৌরসভা, বিভিন্ন ফোর্স কমিটি সহ সর্বমোট ৭৯টি শাখার কমিটি ঘোষণা করা হয়। অনুষ্ঠান শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও ফটোসেশন অনুষ্ঠিত হয়।

শাখা প্রতিনিধিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অ্যাডভোকেট এ এইচ এম জসিমউদদীন, ফোরকান আল হামিদী, মোজাম্মেল হক, অ্যাডভোকেট হাসান আলী, এইচ এম সারওয়ার্দী, কানিজ ফাতেমী লিমা, সৈয়দ সহারাব হোসেন, অ্যাডভোকেট আবসার প্রমূখ। সম্মেলনে একটি প্যানেল এডভোকেট টিম, একটি তথ্যানুসন্ধান টিম, মিডিয়া সেল, শালিশী কাউন্সিল, স্টুডেন্ট কাউন্সিল, রিসার্চ সেল, ভিকটিম রেসকিউ টিম, কালচারাল ফোর্স, ওয়েলফেয়ার টিম গঠন করা হয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm