আমাদের লোভ লালসার কারণেই জলবায়ু পরিবর্তন ঘটছে: হাসিনা খান

0

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের অধ্যাপক ও স্বাধীনতা পুরষ্কারপ্রাপ্ত গবেষক বিজ্ঞানী ড. হাসিনা খান বলেছেন, আমরা একসময় আমাদের দেশের প্রাকৃতিক সম্পদ নিয়ে গর্ব করতাম। কিন্তু বর্তমানে সেসব প্রাকৃতিক সম্পদ আমাদের লোভ লালসার শিকারে পরিণত হচ্ছে। প্রতিনিয়ত পাহাড় কাটা, বন -জঙ্গল উজাড়সহ নানাভাবে প্রাকৃতিক সম্পদ নষ্ট করছি আমরা।

যার ফলে সৃষ্টি হচ্ছে জলবায়ু পরিবর্তনের মতো দীর্ঘমেয়াদী প্রাকৃতিক দুর্যোগ।

বৃহস্পতিবার (৯ জুন) চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) সমাজবিজ্ঞান অনুষদে আয়োজিত ‘সায়েন্স কার্নিভাল ২.০’ অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচকের বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। চবি সায়েন্টিফিক সোসাইটির (সিইউএসএস) উদ্যোগে আয়োজিত হয় এই অনুষ্ঠান। এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনটির সভাপতি হোসাইন মোহাম্মদ বাইজিদ।

এসময় হাসিনা খান বলেন, বিজ্ঞান চর্চা যতো বাড়বে, মানুষ ততো সচেতন হবে এবং পরিবেশ রক্ষায় ভূমিকা রাখবে। অতিলোভ ও সীমালঙ্ঘন থেকে বিরত থাকবে।

তিনি আরো বলেন, আমরা পৃথিবীকে যতো ভালভাবে পেয়েছি, আমাদের পরবর্তী প্রজন্ম সেভাবে পাবেনা। জলবায়ুর পরিবর্তন আমাদের সব কিছু পরিবর্তন করে দিচ্ছে। এই যে হাওড় অঞ্চলে আধা পাকা ধান কেটে ফেলতে হলো, তা জলবায়ু পরিবর্তনের কারণেই। এখনই যদি আমরা সচেতন না হই, সামনে আরো খারাপ অবস্থা হবে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চবি উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীন আক্তার। এসময় তিনি বলেন, আজকের যুগে বিজ্ঞান সর্বতোভাবে গ্রহণ না করলে আমরা পিছিয়ে যাব। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সবসময় শিক্ষক, শিক্ষার্থীদের গবেষণা ও বিজ্ঞান চর্চায় সহযোগিতা করে আসছে। করোনার সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক সম্মুখ সারিতে থেকে কোভিড-১৯ ভাইরাস নিয়ে গবেষণা করেছেন। আগামী দিনেও যদি কোন মহামারী আসে তাহলে সেভাবে তার মোকাবেলা করা হবে।

এর আগে বেলা ১১টায় জাতীয় সংগীত, শহীদদের শ্রদ্ধায় নিরবতা পালন ও পবিত্র কুরআন থেকে তিলাওয়াত এবং অতিথিদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়ার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়।

অনুষ্ঠাবে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চবি উপ-উপাচার্য প্রফেসর বেণু কুমার দে, বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. নাসিম হাসান, সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর সিরাজ উদ-দৌলা, ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডিন ড. রাশেদ মোস্তফা, চট্টগ্রাম অঞ্চলের পরিবেশ বিভাগের পরিচালক মফিদুল আলম, মেরিন সিটি মেডিকেল কলেজের শিশু বিভাগের প্রফেসর বাসনা মুহুরী।

আয়োজনের আহবায়ক হিসেবে ছিলেন চবি জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আল-ফোরকান এবং সদস্য সচিব হিসেবে একই বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. লায়লা খালেদা আখিঁ।

অতিথিদের আলোচনার পরে স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদেরর অংশগ্রহণে পোস্টার প্রেজেন্টেশন, প্রজেক্ট প্রেজেন্টেশন, হ্যাকাথন, রোবো সকার কম্পিটিশন, উপস্থিত বক্তৃতা ও কুইজ অনুষ্ঠিত হয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm