ইউএনও জোবায়ের, কাঁদলেন-কাঁদিয়ে গেলেন

0

উপজেলা চত্বরে বসে এক নারী বসে কাঁদছিলেন। জিগ্যেস করতেই হাউ মাউ করে ওঠলেন। বললেন টিয়ুনু বলে যাইবগু? (ইউএনও নাকি চলে যাচ্ছে)। ওই বৃদ্ধা শেষমেশ কান্না বন্ধ করে ইউএনওকে বিদায় দিতে পারেননি কান্না বন্ধ করতে না পেরে। ওদিকে উপজেলা পরিষদের দ্বিতল ভবনে কান্নার রোল পড়ে গেলো। কান্না আর পুষ্পবৃষ্টি ভেদ করে নিছে নামতেই নিজে কাঁদলেন এবং কাঁদালেন তিনি। তিনি আনোয়ারার ইউএনও শেখ জোবায়ের আহমেদ।

চট্টগ্রামের আনোয়ারা থেকে ৩ বছর ১১ মাস পর গোপালগঞ্জে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে পদোন্নতি পেয়ে চলে যাওয়ার দিন গতকাল মঙ্গলবার( ২৪ জানুয়ারি) দুপুর ১২টায় এমন দৃশ্যের অবতারণা ঘটে।

জানা গেছে, সবার কাছ থেকে বিদায় নিয়ে আনোয়ারা সদরের বাসভবন থেকে পুরো উপজেলা ডরমিটরি এলাকা ঘুরে নিজের গাড়ীতে ওঠেন শেখ জোবায়ের আহমেদ। তাঁর গাড়ীটি উপজেলা পরিষদ গেট পার হতেই আনোয়ারার বিভিন্ন জায়গা থেকে আসা মোটরসাইকেল আরোহীরা তাঁর সাথে যোগ দেন। যোগ দেন বিভিন্ন পেশাশ্রেনীর লোকজন। শুধু মোটরসাইকেল নয় প্রাইভেট আর সিএনজি করে আসা লোকজনও শেখ জোবায়ের আহমেদকে এগিয়ে দিতে যুক্ত হন গাড়ি বহরে। সবমিলিয়ে এক অনবদ্য সৌন্দর্য দেখলো আনোয়ারাবাসী।

এদিকে, আনোয়ারা সদর ক্রস করতে সোনালী ব্যাংকের সামনে কালাবিবির দিঘি মোড়, টানেল রোডেও লোকজন নেমে এসে ফুল আর উপহার দিয়ে জড়িয়ে নেন সদ্য বিদায়ী ইউএনওকে। শুধু তাই গাড়ীবহর থামিয়ে বিদায়ী শুভেচ্ছা জানিয়েছে কর্ণফুলী উপজেলার মিয়ার হাটে অপেক্ষা করা শিক্ষার্থীরাও। এ এক অদ্ভুত ভালোবাসা যেন শেখ জোবায়েরের জন্য।

সর্বশেষ কর্ণফুলী উপজেলার শিকলবাহা ক্রসিং এলাকায় থামে গারিবহর। সবাই গাড়ি থেকে নেমে কোলাকুলি করে বিদায় নিবেন এমনতর সময়ে পড়ে গেলো কান্নার রোল। নিজে কাঁদলেন আর সবাইকে কাঁদিয়ে গেলেন তিনি।

এর আগে, গোপালগঞ্জে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে পদোন্নতি হওয়ায় সোমবার রাতে উপজেলা অফিসার্স ক্লাবের পক্ষে বিদায় সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়। এতে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আবদুল্লাহ্ আল মুমিনের সঞ্চালনায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা চেয়ারম্যান তৌহিদুল হক চৌধুরী। এসময় বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক এম.এ মান্নান চৌধুরী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মৃণাল কান্তি ধর, বীর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবদুল মান্নান, মৎস্য কর্মকর্তা রাশিদুল হক, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জামিরুল ইসলাম, ওসি মীর্জা মোহাম্মদ হাসান, আনোয়ারা প্রেসক্লাবের সভাপতি এম.কে নুরুল ইসলাম, বারশত ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এম.এ কাইয়ূম শাহ্, এছাড়াও লন্ডন থেকে ভিডিও কন্সফারেন্সে যুক্ত হয়ে বক্তব্য রাখেন সাবেক উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. তানভীর হাসান চৌধুরী।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm