সাম্প্রদায়িক অপশক্তির সকল চক্রান্ত শক্ত হাতে প্রতিহত করতে সরকার প্রস্তুত আছে—নওফেল

0

সাম্প্রদায়িক অপশক্তির সকল চক্রান্ত শক্ত হাতে প্রতিহত করতে সরকার প্রস্তুত আছে বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

বৃহস্পতিবার (২৯সেপ্টেম্বর) বিকালে চট্টগ্রাম নগরীর ওয়াসা মোড়ে প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়ামে শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে অনুদান প্রদান এবং সনাতনী সম্প্রদায়ের সাথে শারদ শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে তিনি এ কথা বলেন।

এসময় চট্টগ্রাম-৯ আসনের অন্তর্গত ১৩০ টি পূজামণ্ডপে এ.বি.এম মহিউদ্দিন চৌধুরী ফাউন্ডেশন উদ্যোগে ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের ব্যক্তিগত তহবিল থেকে নগদ ১০ হাজার টাকা করে মোট ১৩ লক্ষ টাকা অনুদান প্রদান করা হয়।

সাম্প্রদায়িক অপশক্তির সকল চক্রান্ত শক্ত হাতে প্রতিহত করতে সরকার প্রস্তুত আছে—নওফেল 1

শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী সবসময় ওঁৎ পেতে আছে কিভাবে সাম্প্রদায়িকতার বিষবাষ্প ছড়াবে। তাদের বিরুদ্ধে আমাদের সচেতন থাকতে হবে, সাম্প্রদায়িক সহিংসতা চালানোর চেষ্টা করলে তাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ ভাবে প্রতিরোধ করতে। এইটা বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ, এইটা বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার বাংলাদেশ। এখানে যারা ডাঙ্গা-হাঙ্গামা করার চেষ্টা করবে, সাম্প্রদায়িক সম্প্রতি নষ্ট করার চেষ্টা করবে তাদের আমরা সম্মিলিতভাবে দাঁত ভাঙ্গা জবাব দেবো। দেশ বিরোধী, স্বাধীনতা বিরোধীদের বিরুদ্ধে আমরা যদি একসাথে প্রতিবাদ-প্রতিরোধ করি তাহলে তারা লেজ গুটিয়ে পালিয়ে যাবে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এবং বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার আদর্শিক নেতৃবৃন্দ পূজা মণ্ডপগুলোর নিরাপত্তা প্রদানে সার্বক্ষণিক আপনাদের পাশে থাকবে। সাম্প্রদায়িক অপশক্তির সকল চক্রান্ত শক্ত হাতে প্রতিহত করতে প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার সরকার প্রস্তুত আছে। ১৯৭১ সালে যারা মানবতার বিরোধী অপরাধ ও যুদ্ধাপরাধ করেছিল এইদেশে তাদের বিচার হয়েছে, ১৯৭৫ সালের ১৫ই আগস্ট রাতের আঁধারে যারা বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যা করেছিল এই দেশে তাদের বিচার হয়েছে। আর যারা মনে করেছে সাম্প্রদায়িক হামলা করে পার পেয়ে যাবে তাদের হুঁশিয়ার করে বলে দিতে চাই বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িকতার কোন স্থান নাই। যারা সম্প্রদায়িক সহিংসতা করার চেষ্টা করবে তাদের আইনের আওতায় হবে এবং বিচার করা হবে। এইটাও মনে রাখবেন যদি ঢিল মারেন তাহলে আমরা পাটকেল তো মারবোই সাথে গণধোলাই দেওয়ার জন্য লাঠিও রাখবো।এই সকল সাম্প্রদায়িক ব্যক্তি-গোষ্ঠীদের চিহ্নিত করে আমরা তাদের বিষদাঁত উপড়ে ফেলবো।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মিসেস হাসিনা মহিউদ্দিন বলেন, সনাতন সম্প্রদায়ের প্রতি অনুরোধ করবো আপনারা নির্ভয়ে শারদীয় দুর্গোৎসব পালন করুন। আপনারা যাতে নিরাপদে শারদ উৎসব পালন করতে পারেন তার সকল ব্যবস্থা প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা করেছেন।

চট্টগ্রাম মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি লায়ন আশীষ কুমার ভট্টাচার্যের সভাপতিত্বে এবং চট্টগ্রাম মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের শিক্ষা ও গবেষণা সম্পাদক রাহুল দাশের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন—চট্টগ্রাম মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক হিল্লোল সেন উজ্জ্বল, নগর আওয়ামী লীগের সম্পাদক সাংগঠনিক সম্পাদক শফিক আদনান, চন্দন ধর, মশিউর রহমান, আব্দুল আহাদ, কাউন্সিলর শহীদুল ইসলাম, জহর লাল হাজারী, মো. জাবেদ, মো. ওয়াসিম উদ্দিন,নুরুল আলম মিয়া, আব্দুর সালাম মাসুম, নুর মোস্তফা টিনু, মহিলা কাউন্সিলর নিলু নাগ, লুতফুর নেছা দোভাষ বেবী, রুমকি সেন, আঞ্জুমান আরা, চট্টগ্রাম মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি দেবাশীষ নাথ দেবু, চট্টগ্রাম মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের যুগ্মা সাধারণ সম্পাদক মিথুন মল্লিক, বিপ্লব সেন, সজল দত্ত, অর্থ সম্পাদক সুকান্ত মহাজন টুটুল, কোতোয়ালী থানা পূজা কমিটির সভাপতি লিটন শীল, তরুন দাশ প্রমুখ।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm