মহেশখালীর গহীন পাহাড়ে অস্ত্র ও মদের কারখানা

0

মহেশখালীর গহীন পাহাড়ে দেশিয় অস্ত্র ও চোলাই মদের কারখানার সন্ধান মিলেছে। জনমানবহীন লোকচক্ষুর আড়ালে গড়ে ওঠা এসব কারখানা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে বিপুল পরিমাণ দেশীয় অস্ত্র তৈরীর যন্ত্রাংশ, চোলাই মদ ও মদ তৈরির বিভিন্ন সরঞ্জাম। অস্ত্র ও মদ তৈরীর এ কারখানাটি পরিচালনা করছিলেন স্থানীয় পানের বরজে কাজ করা তিন যুবক।

মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) মহেশখালীর হোয়ানক ইউনিয়নের পানিরছড়া বারইখইল্লা ঘোনার গহীন পাহাড়ে অভিযান চালিয়ে অস্ত্র, অস্ত্র তৈরীর যন্ত্রাংশ ও ৮০ লিটার চোলাইমদ জব্দ করে মহেশখালী থানা পুলিশ।

মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রণব চৌধুরী বলেন, মঙ্গলবার বিকাল ৫টায় হোয়ানক ইউনিয়নের পানিরছড়া বারইখইল্লা ঘোনার গহীন পাহাড়ের ভেতর অভিযান চালানো হয়। অভিযানে দেশি অস্ত্র তৈরির কারখানা এবং মাদক কারখানার সন্ধান পাই। সেখান থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র তৈরির যন্ত্রাংশ এবং উপাদান উদ্ধার করা হয়। এর মধ্যে রয়েছে- লেদ মেশিন, দেশি অস্ত্র তৈরির স্প্রিং, কার্তুজের পিলেট, অস্ত্র তৈরির জন্য লোহার পাইপ, লোহা কাটার বিভিন্ন যন্ত্র, অস্ত্রের কাঠের বাট, বিভিন্ন ধরনের কার্তুজ ও কার্তুজের খোসা।

ওসি বলেন, আশপাশের পানের বরজে কর্মরত লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারি ওই অস্ত্র ও মাদক কারখানার সঙ্গে রবিউল হোসেন প্রকাশ রবি (৩৫), মনির (৩০) ও মানিক (৩৫) নামে তিন যুবক জড়িত।

ওসি আরও বলেন, তবে ঘটনাস্থল পাহাড়ের গহীনে হওয়ায় পুলিশের উপস্থিতি আগে থেকেই টের পেয়ে অস্ত্র কারখানার সঙ্গে জড়িতরা পালিয়ে যায়। ওই কারখানার অদূরেই একটি দেশি মদের কারখানা ছিল। ওই কারখানা থেকে ৮০ লিটার চোলাই মদ জব্দ করা হয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm